Monday, June 24, 2024
দেশ

বাজপেয়ীর স্মরণে শোকপ্রস্তাবে বাধা দেওয়ায় প্রহৃত AIMIM কাউন্সিলর

মুম্বাই: প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ির স্মরণে পুরসভায় শোক জ্ঞাপন করতে চেয়েছিল একদল বিজেপি কাউন্সিলর। সেই প্রস্তাবে বিরোধিতা করেছিলেন অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলেমিন (AIMIM) কাউন্সিলর সৈয়দ মাতিন। আর সেই কারণেই তাঁকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। মহারাষ্ট্রের ঔরঙ্গাবাদ পৌরনিগমের ঘটনা। ওই কাউন্সিলরকে মারধরের ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে।

বৃহস্পতিবার প্রয়াত হয়েছেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ি। শুক্রবার ঔরঙ্গাবাদ পৌরনিগমে জেনেরাল বডির বৈঠক ছিল। বৈঠক শুরুর পরই কাউন্সিলর রাহুল বৈদ্যের নেতৃত্বে বিজেপি সদস্যরা শোকপ্রস্তাব আনেন। সেই শোকপ্রস্তাবের বিরোধিতা করেন AIMIM কাউন্সিলর সৈয়দ মাতিন। এতে উত্তেজিত হয়ে ১০ থেকে১২ জন বিজেপি কাউন্সিলর চড়াও হন সৈয়দ মাতিনের উপর। তাঁকে লাথি, ঘুষি মারা হয় বলে অভিযোগ। কয়েকজন কাউন্সিলর মাতিনকে উদ্ধারের চেষ্টা করেন। এরপর পৌরনিগমের নিরাপত্তারক্ষীরা এসে বের করে নিয়ে যান সৈয়দকে।

ঔরঙ্গাবাদ পুরসভার বিজেপি কাউন্সিলররা সৈয়দ মাতিনকে মারধোরের অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছেন। তাঁদের কথায়, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী সম্পর্কে অত্যন্ত কুরুচীকর মন্তব্য পেশ করেছিল সৈয়দ মাতিন। সেই কারণেই আমাদের কাউন্সিলররা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। পুরসভার বিজেপি কাউন্সিলররা আরও বলেন, আমরা সৈয়দ মাতিনকে অনেক বোঝানোর চেষ্টা করেছিলাম। অটলজি সম্পর্কে মাতিন এমন কথা বলেছিল যেটা মুখে আনা যায় না। সেই কারণেই আমরা আর নিজেদের উপরে নিয়ন্ত্রণ রাখতে পারিনি।

এদিকে, এই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর এআইএমআইএম সমর্থকরা বিক্ষোভ দেখায়। স্থানীয় বিজেপি নেতা বাবুরাও দেশমুখের গাড়ি লক্ষ্য করে পাথর ছোড়ে। হামলায় গাড়িচালক আহত হন। পৌরনিগমের ভিতরে ও বাইরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়িয়েছে পুলিশ।