Monday, June 24, 2024
দেশ

দু’মাসেই মান্দেসরে নাবালিকা ধর্ষণে মৃত্যদণ্ড দুই অভিযুক্তকে

ভোপাল: দুই মাসের মধ্যেই সাজা ঘোষণা মধ্যপ্রদেশের মান্দেসরে ৮ বছরের নাবালিকাকে গণধর্ষণ মামলায়। মঙ্গলবার ঘটনায় অভিযুক্ত দুই যুবককে প্রাণদণ্ড দিল মধ্যপ্রদেশের এক বিশেষ আদালত। অভিযুক্ত ২০ বছর বয়সী ইরফান ওরফে ভাইয়ু ও ২৪ বছর বয়সী আসিফকে অপরাধী সাব্যস্ত করে ফাঁসির সাজা দেন বিচারক নিশা গুপ্তা। সরকারি কৌঁসুলি বি এস ঠাকুর জানান, ভারতীয় দণ্ডবিধিতে নতুন অন্তর্ভূক্ত হওয়া ৩৭৬ ডিবি ধারায় অভিযুক্তদের ফাঁসির নির্দেশ দেওয়া হল।

গত ২৬শে জুন মান্দেসরের হাফিজ কলোনির স্কুল থেকে এক নাবালিকাকে অপহরণ করে গণধর্ষণ করে ভাইয়ু ও আসিফ। এমনকী গলা কেটে তাকে মেরে ফেলার চেষ্টাও করে তারা। ধস্তাধস্তিতে মেয়েটির ঘাড়ে, মুখে, মাথায় ও গোপনাঙ্গে আঘাত লাগে। ইন্দোরে তার চিকিৎসা চলছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা দায়ের করা হয়। ঘটনার তদন্তের জন্য রাজ্য সরকারের তরফে এসটিআই গঠন করা হয়। নির্যাতিতার বাবাকে পাঁচ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয় রাজ্য সরকার। এছাড়া রাজ্য সরকারের তরফে নির্যাতিতার চিকিৎসার দায়িত্ব নেওয়া হয়।

এই নাবালিকা ধর্ষণের ঘটনায় ক্ষোভের মাত্রা এতটাই চরমে পৌঁছেছিল যে, এ দিন সকালে ভাইয়ু ও আসিফকে আদালতে ঢোকানোর সময় বিজেপি নেতা বিনয় দুবেলা দোষীদের একজনকে চড় মারেন। এই গণধর্ষণের ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর গোটা রাজ্য জুড়ে শুরু হয়েছিল প্রতিবাদ। অপরাধীর ফাঁসি চেয়ে হাজার হাজার মানুষ পথে নামে। দোষীদের ফাঁসির দাবি জানিয়েছিলেন নির্যাতিতার বাবা-মা। তবে ঘটনার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত ভাইয়ু ও আসিফকে।