Tuesday, April 23, 2024
আন্তর্জাতিক

জার্মানিতে নারী জঙ্গি নেটওয়ার্কের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ

জার্মানির গোয়েন্দারা জানান, তাঁরা দেশটির সবচেয়ে জনবহুল রাজ্যে নারী জঙ্গিদের একটি নেটওয়ার্কের সন্ধান পেয়েছেন৷ প্রায় ৪০ জন নারী এই নেটওয়ার্কের সদস্য বলে জানা গেছে৷

নর্থ রাইন ওয়েস্টফালিয়া রাজ্যের ‘প্রোটেকশন অফ দ্য কন্সটিটিউশন’ বা বিএফভি-র প্রধান বুর্খার্ড ফ্রায়ার ‘ফ্রাংকফুর্টার আলগেমাইনে সাইটুং’ পত্রিকাকে জানিয়েছেন, ঐ নেটওয়ার্ক সালাফি মতবাদের কঠোর অনুসারী৷ সালাফি এ সব শিক্ষার মধ্যে আছে, কীভাবে সন্তান পালন করতে হবে, ইসলামের নিয়মকানুন কীভাবে ব্যাখ্যা করতে হবে এবং তথাকথিত ‘অবিশ্বাসীদের’ বিরুদ্ধে কীভাবে ঘৃণা ছড়াতে হবে৷ এছাড়া নেটওয়ার্কের সদস্যরা ইন্টারনেটে সালাফি মতবাদের প্রচার ও প্রসারে সক্রিয়ভাবে জড়িত বলে জানান ফ্রায়ার৷ তিনি বলেন, সালাফিদের সঙ্গে সন্ত্রাসীদের মিলিয়ে ফেলা ঠিক না হলেও এটা ঠিক যে, সাম্প্রতিক সময়ে ইউরোপের প্রত্যেক জিহাদি সালাফি মতবাদের অনুসারী ছিলেন৷

ইসলামিক স্টেট (আইএস) সুন্নী ইসলামিস্ট আদর্শে বিশ্বাসী আল-কায়েদার একটি উপদল, যেটি আইএসআইএল, আইসিস এবং দায়েশ নামেও পরিচিত৷ ২০০৩ সালে ইরাকে মার্কিন নেতৃত্বাধীন আক্রমণের পর এটির বহিঃপ্রকাশ ঘটে৷ এই গোষ্ঠীর নেতৃত্বে রয়েছেন আবু বকর আল-বাগদাদি৷ জঙ্গি গোষ্ঠীটির লক্ষ্য হচ্ছে ইরাক, সিরিয়া এবং অন্যান্যা অঞ্চল নিয়ে একটি ইসলামিক স্টেট বা খেলাফত প্রতিষ্ঠা করা৷

ফ্রায়ার বলেন, এই নারীরা তাদের সন্তানদের মধ্যেও সালাফি মতবাদ ঢুকিয়ে দিচ্ছেন৷ অর্থাৎ ‘এটি একটি পারিবারিক বিষয়’ হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি৷

নেটওয়ার্কের সদস্যদের এ ধরনের কাজের প্রতি তাদের স্বামীদের সমর্থন আছে৷ ‘‘পুরুষরা দেখেছে যে, নারীরা ভালো নেটওয়ার্ক করতে পারে৷ ফলে সালাফি মতবাদের প্রসারে তাঁরা বেশ কার্যকর হতে পারে,” বলেন ফ্রায়ার৷ এএফপি