Monday, July 22, 2024
দেশ

‘অ্যান্টি-ড্রোন সিস্টেম’ কিনছে ভারতীয় বায়ুসেনা

নয়াদিল্লি: দেশের প্রতিরক্ষা পরিকাঠামো আরও মজবুত করতে ১০টি অ্যান্টি-ড্রোন সিস্টেম বা ড্রোন বিধ্বংসী অস্ত্র কিনতে চলেছে ভারতীয় বায়ুসেনা। সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, সোমবার অ্যান্টি-ড্রোন সিস্টেম কিনতে লেটার ফর রিকোয়েস্ট জারি করেছে বায়ুসেনা।

জানা গিয়েছে, ওই লেটার ফর রিকোয়েস্টে বলা হয়েছে, ১০টি ড্রোন বিধ্বংসী সিস্টেম কেনার কথা। এগুলি লেজার রশ্মি দিয়ে তৈরি ডিরেক্ট এনার্জি ওয়েপন। লেজার রশ্মি ব্যবহার করে প্রতিপক্ষের ড্রোন ধ্বংস করতে পারবে এই হাতিয়ারগুলি। প্রস্তুত হয়ে গেলে পাকিস্তান ও চিন সীমান্তে মোতায়েন করা হবে এই সিস্টেম।

বায়ুসেনা জানিয়েছে, নয়া ড্রোন বিধ্বংসী হাতিয়ারগুলি সহজে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নিয়ে যাওয়া যাবে। সেগুলি গাড়ির উপর বহন করার মতো ব্যবস্থা থাকবে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি জম্মুর সেনাঘাঁটিতে বোমা ফেলে পাকিস্তানের দিকে পালিয়ে যায় দুটি ড্রোন। পাকিস্তান সরকার কয়েকদিন আগেই চিনের থেকে প্রচুর পরিমাণে ড্রোন কিনেছে। যদিও পাক সরকারের তরফে বলা হচ্ছে, দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পিজ্জা ও ওষুধ সরবরাহের জন্যে কিনেছে তারা। তবে পাকিস্তানের সেই কথায় বিশ্বাস করতে নারাজ ভারত। কেননা এর আগেও ভারতে হামলার পিছনে পাক সরকারের মদতের প্রমাণ মিলেছে। তাই নিরাপত্তা ব্যবস্থায় কোনওরকম ফাঁক রাখতে রাজি নয় কেন্দ্রীয় সরকার।

সরকারি হিসাব বলছে, ২০২০ সাল থেকে বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স (বিএসএফ) জম্মু ও কাশ্মীর থেকে গুজরাট পর্যন্ত পশ্চিম সীমান্তে ৯৯ টিরও বেশি হামলাকারী ড্রোন দেখেছে। সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারভানে গত সপ্তাহে বলেছিলেন, সীমান্তে বর্তমানে চিন্তার কারণ হয়ে দাড়িয়েছে ড্রোন। তাই ভবিষ্যতের পরিকল্পনা করে আমাদের অ্যান্টি-ড্রোন সিস্টেম তৈরি করতে হবে।