Thursday, April 25, 2024
দেশ

দেশের শীর্ষ সন্ত্রাসী ‘বিন লাদেন’ গ্রেফতার

নয়াদিল্লি: দেশের শীর্ষ ফেরারি সন্ত্রাসী ২০০৮ সালে গুজরাটে চালানো ধারাবাহিক বোমা হামলার আসামি আবদুল সুবাহান কুরেশিকে গ্রেফতার করার কথা জানিয়েছে দিল্লি পুলিশ। গুজরাটের ওই বোমা হামলায় ৫৬ জন নিহত হয়েছিল। সোমবার দিল্লির গাজিপুরে সংক্ষিপ্ত গোলাগুলির পর কুরেশিকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ। একজন সফটওয়্যার প্রকৌশলী থেকে বোমা প্রস্তুতকারী কুরেশিকে কখনও কখনও ‘ভারতের বিন লাদেন’ বলা হয়।

আগামী শুক্রবার প্রজাতন্ত্র দিবস। এর আগে কুরেশিকে গ্রেফতার করতে পারা একটি বড় ধরনের সাফল্য বলে দাবি করেছে দিল্লি পুলিশ।

পুলিশের স্পেশাল সেলের ডেপুটি কমিশনার প্রমোদ কুশওয়াহা বলেন, ‘কুরেশির কাছ থেকে পিস্তল ও নথি উদ্ধার করেছি আমরা। সে এসআইএমআই ও ভারতীয় মুজাহিদীনকে ফের চাঙ্গা করার চেষ্টা করছিল।’পুলিশ জানায়, কুরেশি জাল পাসপোর্ট তৈরি করে নেপাল পালিয়ে গিয়ে সেখানে কয়েক বছর বসবাস করেছে, পরে ২০১৩ সালে সে সৌদি আরবে চলে যায় ও ২০১৫ সাল পর্যন্ত সেখানেই থাকে।

সন্ত্রাসী নেটওয়ার্কগুলো পুনরুজ্জীবিত করতে ওই বছর সে দেশে ফিরে আসে। গত কয়েক বছর ধরে ভারতজুড়ে কুরেশির খোঁজে তল্লাশি চালিয়ে আসছিল ভারতীয় পুলিশ। কুরেশি ‘তৌকির’ নামেও পরিচিত। তদন্তকারীরা তাকে ‘কম্পিউটার দক্ষ বোমারু’ বলে বর্ণনা করেছেন। সে নিষিদ্ধ ঘোষিত স্টুডেন্টস ইসলামিক মুভমেন্ট অব ইন্ডিয়ার (এসআইএমআই) সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত ছিল। ২০০৮ সালের ২৬ জুলাই আহমেদাবাদ ও সুরাটে বোমা হামলার পরিকল্পনার জন্য কুরেশিকে অভিযুক্ত করা হয়।