Saturday, July 20, 2024
দেশ

‘হিন্দুধর্ম বলে কিছু নেই, পুরোটাই ভাঁওতা’, ফের বিতর্কিত মন্তব্য করলেন সমাজবাদী পার্টির নেতা

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: ফের বিতর্কিত মন্তব্য করলেন সমাজবাদী পার্টির নেতা স্বামী প্রসাদ মৌর্য। রামচরিতমানসের পর এবার হিন্দুধর্ম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করলেন তিনি। হিন্দু ধর্মকে ভাঁওতা বলে উল্লেখ করলেন তিনি। স্বামী প্রসাদ মৌর্যের এহেন মন্তব্যে বেজায় চটেছেন সাধুসন্তরা। তাঁরা স্বামী প্রসাদ মৌর্যকে ক্ষমা চাওয়ার নিদান দিয়েছেন।

স্বামী প্রসাদ মৌর্য টুইটে লিখেছেন, ‘ব্রাহ্মণ্যধর্মের শিকড় অনেক গভীরে। তবে হিন্দু বলে কোনও ধর্ম নেই। হিন্দুধর্মের পুরোটাই ভাঁওতা। আসলে দলিত, আদিবাসী ও পিছিয়ে পড়া মানুষদের ফাঁদে ফেলার জন্য একটা ষড়যন্ত্র। ব্রাহ্মণ্য ধর্মকে হিন্দু ধর্ম বলে উল্লেখ করা হচ্ছে। হিন্দু ধর্ম বলে কিছু থাকলে আদিবাসীদের সম্মান করা হতো, দলিতদের সম্মান করা হতো, পিছিয়ে পড়া মানুষদের সম্মান করা হতো। কিন্তু রসিকতা করা হল…’

বিজেপি নেতা দীনেশ শর্মা এবং আম আদমি পার্টির শেখর দীক্ষিতও হিন্দু ধর্ম নিয়ে স্বামী প্রসাদ মৌর্যের বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন। পাশাপাশি, নেটিজেনরাও মৌর্যের এহেন মন্তব্যে বেজায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন।

এর আগে ফেব্রুয়ারিতে স্বামী প্রসাদ মৌর্য রামচরিতমানসের কিছু শ্লোক জাতপাতের ভিত্তিতে সমাজের একটি বড় অংশকে ‘অপমান’ করছে বলে দাবি করেন এবং এগুলিকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানান। তিনি আরও বলেন, হিন্দু ধর্মীয় পাঠ্য সমস্তটাই বাজে কথা। মৌর্য রামচরিতমানসের আপত্তিকর অংশ মুছে ফেলার জন্য বা পুরো বইটিকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানান।