Friday, July 19, 2024
আন্তর্জাতিক

‘আমরা ভারতের থেকে ১০০ বছর পিছিয়ে আছি’, চন্দ্রযানের সাফল্যে বলছেন পাকিস্তানিরা

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: বুধবার ইতিহাস গড়লো ভারত। চতুর্থ দেশ হিসেবে চাঁদে এবং চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে প্রথম দেশ হিসেবে সফল অবতরণ করলো ভারতের চন্দ্রযান ৩। ইসরোর এই সাফল্য ১৪০ কোটি ভারতবাসীকে গর্বিত করেছে। শুভেচ্ছা বন্যায় ভাসছে গোটা দেশ। দেশ বিদেশ থেকে এসেছে শুভেচ্ছা বার্তা। ভারতের চন্দ্রযান ৩ এর সাফল্য নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে পাকিস্তানের নাগরিকরাও।

সংবাদসংস্থা পিটিআইকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানের এক পোশাক বিক্রেতা বলেন, ‘পাকিস্তান ১০০ বছর পিছিয়ে আছে ভারতের থেকে। আজ থেকে ১০০ বছর পরে হয়তো পাকিস্তান চাঁদে পা রাখবে। তবে তারও কোনও আশা দেখছি না। কারণ আমাদের রাজনীতিকরা নিজেদের মধ্যে লড়াই করে চলেছে। একে অপরের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলছে। একজন আরেকজনকে চোর বলছেন। এর জন্য সাধারণ মানুষ শান্তিতে থাকতে পারছে না।’

পাকিস্তানি এক তরুণ বলেন, ‘ভারত চাঁদে পা রাখলো। আর আমরা পাকিস্তানিরা চড়া দামে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে গিয়ে নাজেহাল। আমাদের দেশের সরকার বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তি নিয়ে উদাসীন।’

আরেকজন বলেন, ‘শিক্ষায়-দীক্ষায় পাকিস্তানের থেকে অনেকটাই এগিয়ে ভারত। আমি দুবাইতে কাজ করি। সেখানে ভারতীয়দের আমি দেখেছি। তারা অনেক শিক্ষিত। আর পাকিস্তানিদের মধ্যে যারা শিক্ষিত, তারা সুযোগ পায় না। আর কেউ এগোতে চাইলেও পাকিস্তানে তাকে দাবিয়ে দেওয়া হয়। কেউ ভালো প্রোজেক্ট চালু করতে চাইলে সরকার তা সমর্থন করে না। সরকার সাহায্য করলে পাকিস্তানও অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারতো। পাকিস্তানে মেধার অভাব নেই।’ 

অপর আরেকজন বলেন, ‘ভারতের আইটি ছাত্ররা আমাদের থেকে অনেক এগিয়ে। ভারত আইটি খাতে ব্যাপক উন্নতি করেছে। ভারতের সরকার সেদেশের আইটি খাতকে সাহায্য ও সমর্থন করে। আইটি সেক্টরের জন্য আলাদা বাজেট বরাদ্দ হয়। আর পাকিস্তানে আইটি খাতের জন্য কোনও বাজেট নেই। সরকার কোনও সাহায্য করে না। আইটি খাতে এখানে কাজের কোনও সুযোগ নেই। পাকিস্তানে পড়াশোনার মানও ভালো না। আর ভারত অনেকটাই এগিয়ে আমাদের থেকে।’