Wednesday, July 24, 2024
রাজ্য​

ভোট পরবর্তী হিংসার কারণে অসমে আশ্রয় নেওয়া ‘শরণার্থী শিবিরে’ যাবেন রাজ্যপাল

কলকাতা: গত ২ মে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর রাজনৈতিক হিংসার বলি হয়েছেন অনেকেই। বিজেপির অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাদের কর্মীদের হত্যা করেছে। এমনকি বাড়ির মহিলা সদস্যদের উপরও হামলা, বাড়ি-ঘর ভাঙচুর, লুটপাট করা হয়েছে। তাদের বহু কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। ভোট পরবর্তী হিংসার হাত থেকে জীবন বাঁচাতে কমপক্ষে ৩০০-৪০০ জন বিজেপি কর্মী অসমে পাড়ি দিয়েছেন। এখনও সেখানেই রয়েছেন তাঁরা। ১৪ মে অসমের তাঁদের সঙ্গে দেখা করতে যাবেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর।

বাংলা থেকে অসমে পাড়ি দেওয়া ওই ৩০০-৪০০ জন বিজেপি কর্মী রণপাগলি এবং শ্রীরামপুরের ‘শরণার্থী শিবিরে’ রয়েছেন বলে খবর। অসম সরকার থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা করেছে। আক্রান্তদের সঙ্গে কথাও বলবেন রাজ্যপাল।

অসমে ‘শরণার্থী শিবিরে’ যাওয়ার আগে বৃহস্পতিবার কোচবিহারের শীতলকুচি পরিদর্শনে যাবেন রাজ্যপাল। তবে শীতলকুচিতে যাওয়ার জন্য রাজ্যের কাছে একটি হেলিকপ্টার চেয়েছিলেন রাজ্যপাল। কিন্তু তিনি তা পাননি। তাই বিএসএফের হেলিকপ্টারে শীতলকুচি যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি অসমের মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা দাবি করেছেন, ভোট পরবর্তী হিংসার কারণে পশ্চিমবঙ্গ থেকে প্রায় ৪০০ বিজেপি কর্মী এবং তাদের পরিবার অসমে চলে এসেছেন ৷ এই ঘটনাকে খুবই দুঃখজনক বলে উল্লেখ করেন তিনি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে গণতন্ত্রের এই বিকৃত নৃত্য দিদির বন্ধের আহ্বান জানান তিনি ৷ এইসব মানুষদের খাবার এবং থাকার ব্যবস্থা অসম সরকারের তরফে করা হয়েছে বলে জানান হিমন্ত ৷