Monday, July 22, 2024
রাজ্য​

বাংলা দখলে মরিয়া বিজেপি, শুধু মোদী-শাহ-নাড্ডা নয়, ২৯৪ নেতা সর্বশক্তি নিয়ে ঝাঁপাচ্ছে

কলকাতা: বিজেপির টার্গেট এবার বাংলার বিধানসভা ভোটে জয়লাভ করা। সেই লক্ষ্যে সর্বশক্তি নিয়ে ঝাঁপাচ্ছে গেরুয়া শিবির। ঘনঘন বাংলা সফরে আসছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। অমিত শাহ ইতিমধ্যেই দু’দিনের সফরে এসে বড়সড় ভাঙন ধরিয়েছেন তৃণমূলে। তবে এবার শুধু অমিত শাহ, জেপি নাড্ডা কিংবা মোদী নয়। আরও প্রথমসারির মন্ত্রী রাজ্যে নির্বাচনী প্রচারে আসবেন।

বিজেপির এক শীর্ষ নেতা জানিয়েছেন, ‌এখানের প্রচারে শুধু অমিত শাহ বা জেপি নাড্ডা আসবেন না। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও আসবেন। দিনক্ষণ এখনও চূড়ান্ত হয়নি। তবে বছরের শুরুতেই এক ঝাক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও নেতারা আসবেন। ইতিমধ্যেই বিজেপির সর্বভারতীয় মহিলা মোর্চার সভানেত্রী ভিনিতা শ্রীনিবাসন বাংলায় এসে সংগঠনের কাজ খতিয়ে দেখছেন।

ভিনিতা দক্ষিণবঙ্গে মহিলাদের নিয়ে সংগঠন মজবুত করবেন। আর উত্তরবঙ্গে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল প্রচার করবেন। ইতিমধ্যেই তিনি রাজ্যে পৌঁছে গিয়েছেন। চা–চক্রের মাধ্যমে গৃহ–সম্পর্ক তৈরি করা হবে। এই সপ্তাহের শেষে উত্তরপ্রদেশের উপ–মুখ্যমন্ত্রী কেশবচন্দ্র মৌর্য বাংলা সফরে আসবেন।

বিজেপি যে বাংলা দখলে মরিয়া তা কার্যত তাঁদের কর্মসূচিতেই স্পষ্ট। এই প্রথম বাংলার ২৯৪টি আসনের জন্য ২৯৪ জন কেন্দ্রীয় নেতা–মন্ত্রীকে রাজ্যে পাঠাচ্ছে কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতৃত্ব। এমনটা আগে কখনও বিজেপি করেনি।

বিজেপির লক্ষ্য ২০০টি আসনে জয়লাভ করা। যেখানে প্রশান্ত কিশোর ৯৯ সংখ্যায় বিজেপিকে বেঁধে দিয়েছেন। চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বলেছেন, বিজেপি দুই অঙ্কের বেশি আসন পেলে আমি রাজনীতির ক্ষেত্র ছেড়ে দেব। আরেক তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল বলেছেন, পিকে অনেক বেশিই বলেছেন। বিজেপি তার থেকে অনেক কম আসন পাবে। বড়জোর ৪০টি আসন পেতে পারে।