Sunday, July 21, 2024
রাজ্য​

সরকারি স্কুলে ঝোলাতে হবে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি-ব্যানার, নির্দেশ শিক্ষা দফতরের

কলকাতা: রাজ্যের সকল সরকারি ও সরকার অনুমোদিত স্কুলে জরুরি ভিত্তিতে ঝোলাতে হবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি ও ব্যানার! শিক্ষা দফতর এ সম্পর্কিত নতুন নির্দেশনা জারি করেছে। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে বিতর্ক। সোমবার ইমেইল করে শিক্ষা দফতর জানিয়েছে, নির্দেশটি ‘ভেরি ভেরি ইম্পর্ট্যান্ট।’

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ২০১৮ সালের ‘মেরিট-কাম-মিনস স্কলারশিপে’র প্রচারের জন্য স্কুলের সবচেয়ে ‘প্রমিনেন্ট’ জায়গায় মুখ্যমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত ব্যানার ঝোলাতে হবে। ওই ইমেলেই ব্যানারের সফ্‌ট কপি পাঠানো হয়েছে। স্কুলগুলিকে সেটি ছাপিয়ে নিতে হবে।

ওই ব্যানারে বাঁদিকে একটা বড় অংশ জুড়ে রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি। সঙ্গে রয়েছে বিশ্ববাংলার লোগো। পাশে স্বামী বিবেকানন্দের ছবির উপরে ‘পশ্চিমবঙ্গের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণা’র কথা লেখা। নীচে রয়েছে এই বছরের বৃত্তির জন্য ৩০ নভেম্বরের মধ্যে আবেদন করার নির্দেশ।

শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর, রাজ্যের দরিদ্র ও পিছিয়ে পড়া পড়ুয়াদের সাহায্যের জন্য বিবেকানন্দের নামাঙ্কিত ওই বৃত্তি প্রদান ২০০৬-০৭ শিক্ষাবর্ষে বাম সরকারের আমলে চালু হয়েছিল। বার্ষিক উপার্জন আড়াই লক্ষ টাকার কম, এমন পরিবারের কৃতি ছেলেমেয়েরা এর জন্য আবেদন করতে পারেন। একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণি থেকে শুরু করে গবেষক স্তর পর্যন্ত বৃত্তি দেওয়া হবে। তবে বিকাশ ভবন সূত্রের খবর, বিবেকানন্দের নামাঙ্কিত এই বৃত্তির প্রচারের জন্য এর আগে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি-সহ এমন ব্যানার ব্যবহার করা হয়নি। এবারই প্রথম।

‘নিখিল বঙ্গ শিক্ষক সমিতি’র নেতা কৃষ্ণপ্রসন্ন ভট্টাচার্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে বলেন, চলচ্চিত্র উৎসব জুড়ে কেবল মুখ্যমন্ত্রীই ছবি ছিল। এখন স্কুলে স্কুলে নিজের ছবি টাঙাতে বলছেন! এতদিন ধরে এই বৃত্তি দেওয়া হচ্ছে, এমন কখনও হয়নি। প্রেসিডেন্সি কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ অমল মুখোপাধ্যায় বলেছেন, একজন মুখ্যমন্ত্রী স্কুলে স্কুলে নিজের ছবি সম্বলিত ব্যানার পাঠাচ্ছেন! এও সম্ভব!