Sunday, July 21, 2024
দেশ

ট্রেন দুর্ঘটনার পরও বক্তৃতা চালিয়ে গেছেন সিধুর স্ত্রী, অভিযোগ প্রত্যক্ষদর্শীদের

অমৃতসর: অমৃতসরের চৌরাবাজারে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনার দায় কার? ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা বলছেন, এতগুলির মৃত্যুর দায়ভার নিতে হবে প্রশাসন এবং দশেরা কমিটিকে। স্থানীয়দের অভিযোগ, অনুমতি ছাড়াই এখানে দশেরা উদযাপনের আয়োজন করেছিল কংগ্রেস। প্রধান অতিথি ছিলেন নভজ্যোৎ সিং সিধুর স্ত্রী নভজ্যোত কৌর। ট্রেন দুর্ঘটনার পরও সিধুর স্ত্রী বক্তৃতা চালিয়ে গেছেন বলে তাঁদের অভিযোগ।

স্থানীয়দের অভিযোগ, প্রশাসনের অনুমতি না নিয়েই রেললাইনের পাশের মাঠে দশেরা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল কংগ্রেস। রেললাইনের দিকে লাগানো হয়েছিল এলইডি। ঘটনাস্থলে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিধুর স্ত্রী নভজ্যোত কৌর। রাবণের কুশপুতুল দহনের পরই আগুনের হাত থেকে বাঁচতে লোকজন রেললাইনের দিকে ছুটে যায়। ঠিক তখনই তখনই দ্রুত গতিতে ছুটে আসে  ডিএমইউ ও অমৃতসর এক্সপ্রেস। ট্রেনটি হুইসেল দিলেও ভিড়ের মধ্যে সে শব্দ শুনতে পাননি কেউই। ট্রেনের নীচে কাটা পড়ে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ৫০ জনের।

নভজ্যোত কৌর

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, প্রশাসন এবং দশেরা কমিটির ত্রুটির কারণেই এই দুর্ঘটনা। ট্রেন যখন আসছিল তখন সতর্ক করা উচিত ছিল। ট্রেনটি দাঁড় করানো বা ধীরে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করতে হত।

স্থানীয়দের অভিযোগ, এতবড় দুর্ঘটনার পর নভজ্যোৎ সিং সিধুর স্ত্রী উদ্ধারকাজে সহযোগিতা করেননি, উল্টে ঘটনাস্থল ছেড়ে পালান। এটা রাজ্যের লজ্জা। স্থানীয় কংগ্রেস নেতারা অনুমতি নেওয়ারও প্রয়োজন বোধ করেননি। ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি তুলেছেন স্থানীয়রা।