Tuesday, July 16, 2024
Latestবিনোদন

দেশের জওয়ান মারা গেলে যারা আনন্দ করে তাদের সমর্থন করা অনুচিত, দীপিকাকে বললেন কঙ্গনা

নয়াদিল্লি: দিনকয়েক আগেই ‘ছপাক’ সিনেমার জন্য দীপিকা পাড়ুকোনের অভিনয়ের ভূয়সী প্রশংসা করেছিলেন কঙ্গনা রানাওয়াত। তবে এবার জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে (JNU) হামলার পর আক্রান্ত পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়ানোয় দীপিকা পাড়ুকোনকে আক্রমণ করলেন কঙ্গনা।

দীপিকা জেএনইউয়ে ক্যাম্পাসে গিয়ে আক্রান্ত পড়ুয়াদের সমর্থন করেন। এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ বিষয়ে কঙ্গনা বলেন, আমার মতে দীপিকা নিজের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করেছেন, যা তিনি করতে পারেন। ও খুব ভালোভাবেই জানতো ও কি করছে। ও কি করছে, সে বিষয়ে আমার মতামত জানানো উচিত নয়। ওর কি করা উচিত বা কি করা উচিত নয়, তা বলা আমার পক্ষে সঠিক নয়। আমি কি করব, সে বিষয়ে আমি বলতে পারি।

তবে আপনি কি যেতেন জেএনইউ-তে? এই প্রশ্নের উত্তরে কঙ্গনা হেসে বলেন, আমি অবশ্যই যেতাম না। কিছুতেই ওই টুকরে গ্যাংয়ের পাশে দাঁড়াতাম না। যারা দেশভাগ করছে, তাদের আমি সমর্থন করি না। দেশের জওয়ান মারা গেলে যারা আনন্দ করে তাদের সমর্থন করা অনুচিত।

প্রসঙ্গত, দিনকয়েক আগে যোগগুরু রামদেব বলেন, দীপিকা একজন অত্যন্ত ভালো অভিনেত্রী। কিন্তু তাঁর দেশের সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক বিষয়ে আরও একটু পড়াশোনা করা দরকার। তারপরেই তিনি কোনও বড় সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন। তাঁর কোনও পরামর্শদাতার প্রয়োজন আছে।

পাশাপাশি, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতি সমর্থন জানিয়ে রামদেব বলেন, যারা সিএএ-র পুরো নামটাই বলতে পারবে না, তারাও এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ তো বলেই দিয়েছেন, এই আইনে কারও নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়া হবে না। তার পরেও অনেকে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে।