Sunday, July 21, 2024
দেশ

দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে ভারতের জিডিপি বৃদ্ধির হার কমলেও চিনের চেয়ে এগিয়ে

নয়াদিল্লি: চলতি আর্থিক বছরের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে শিল্প ও কষিতে মন্দার কারণে ভারতের জিডিপি বৃদ্ধির হার কমে হয়েছে ৭.১ শতাংশ যেখানে আগের ত্রৈমাসিকে অংকটা ছিল ৮.২ শতাংশ। শুক্রবার প্রকাশিত কেন্দ্রীয় পরিসংখ্যান অনুযায়ী, চলতি আর্থিক বছরে জুলাই-সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে জিডিপির হার কমেছে ৭.১%। তা-সত্ত্বেও এখনও চিনের থেকে এগিয়ে রয়েছে ভারতের বৃদ্ধি। পড়শি দেশ চিনে বৃদ্ধির হার ৬.৫ শতাংশ।

কেন্দ্রীয় পরিসংখ্যান অনুযায়ী, চলতি আর্থিক বছরে এপ্রিল-জুন ত্রৈমাসিকে জিডিপির হার ছিল ৮.২ শতাংশ। কিন্তু শিল্প ও কষিতে মন্দার কারণেই জিডিপির হার ৭.১ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে। এমন কারণই দর্শানো হয়েছে এই ত্রৈমাসিক রিপোর্টে।এ প্রসঙ্গে অর্থনীতিবিদরা জানিয়েছেন, জিডিপি বৃদ্ধির হার কমে গিয়েছে কারণ লাগামছাড়া খরচ এবং নগদের অভাবে লগ্নি ব্যহত হয়েছে অ-ব্যাংকিং আর্থিক সংস্থায়।

কেন্দ্রীয় সরকার বিবৃতিতে জানিয়েছে, ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে জিডিপি ৩৩.৯৮ লক্ষ কোটি টাকা। গত আর্থিক বছরে একই ত্রৈমাসিক জিডিপির মূল্য ৩১.৭২ লক্ষ কোটি। ফলে গত আর্থিক বছরের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে তুলনায় চলতি অর্থবর্ষে জিডিপি হার বেড়েছে। পাশাপাশি কৃষি-অরণ্য ও মৎস্যচাষ, খনিজ, ব্যবসা, হোটেল-পরিবহণ- যোগাযোগ-আর্থিক ও সম্প্রচার সংক্রান্ত পরিষেবা, আর্থিক পরিষেবা, নির্মাণ ও বৃত্তিক পরিষেবা’র আর্থিক বৃদ্ধি যথাক্রমে ৩.৮%, (-)২.৪%, ৬.৮ % এবং ৬.৩%।

বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম বৃদ্ধি, টাকার দামে রেকর্ড পতন এবং কৃষিতে মন্দার কারণে যে জিডিপির হার কমতে পারে এমনটা আগেই আশঙ্কা করা হয়েছিল। তবে জিডিপির হারে চিনের থেকে এগিয়ে রয়েছে ভারত। আর্থিক বর্ষের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিক রিপোর্টে প্রকাশিত খারাপ ফলের পরও ভারতকে টপকাতে পারেনি চিন।