Monday, July 22, 2024
দেশ

হাসপাতাল বানাতে গত ৫০ ধরে জমা পড়া সব সোনা দান করবে নান্দেদ সাহেব গুরুদ্বার

মুম্বাই: করোনা মোকাবেলায় সমাজের সর্বস্তরের মানুষ যার যা সামর্থ মতো এগিয়ে এসেছেন। পিছিয়ে নেই দেশের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলোও। এবার মহারাষ্ট্রের নান্দেদ সাহেব গুরুদ্বার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে করোনার পরিস্থিতিতে মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে তারা একটি হাসপাতাল এবং মেডিকেল কলেজ (Hospitals and Medical Colleges) নির্মাণ করবেন।

গুরুদ্বারের তরফে বলা হয়েছে, গত ৫০ বছরে জমা পড়া সমস্ত স্বর্ণ দান করব। এ থেকে প্রাপ্ত অর্থ দিয়ে হাসপাতাল এবং মেডিকেল কলেজ তৈরি করা হবে। উল্লেখ্য, নান্দেদ সাহেব গুরুদ্বার দেশের সর্বাধিক বিখ্যাত গুরুদ্বারগুলির মধ্যে একটি। নান্দেদ সাহেব গুরুদ্বার তখত শ্রী হাজুর সাহেব নামেও পরিচিত।

গুরুদ্বার জামেদার বাবা কুলবন্ত সিং জানান, এখনও নান্দেদের লোকদের চিকিৎসার জন্য হায়দরাবাদ এবং মুম্বাইয়ে যেতে হয়। তাই নান্দেদে যদি একটি ভালো হাসপাতাল নির্মাণ করা হয়, তাহলে এখানকার লোকদের দারুণ সুবিধা হবে। চিকিৎসার জন্য তাঁদের আর বাইরে যেতে হবে না।

কূলবন্ত সিং আরও বলেন, গত ৫০ বছর ধরে গুরুদ্বারে যে সোনা জমা পড়েছে। আমরা সেটা মানুষের সেবায় নিয়োজিত করবো। ওই সোনার টাকায় হাসপাতাল এবং মেডিকেল কলেজ গড়ে তুলবো। হাসপাতাল হলে অনেকের সুবিধা হবে। নান্দেদ সাহেব গুরুদ্বার শিখদের ৫টি তখতের মধ্যে একটি। এটি ১৮৩২ থেকে ১৮৩৭ এর মধ্যে নির্মিত। গোদাবরী নদীর তীরে অবস্থিত এই গুরুদ্বার গোটা বিশ্বের কাছে বিখ্যাত। দেশ-বিদেশ থেকে বহু মানুষ আসেন এই গুরুদ্বার দর্শন করতে।

করোনার দ্বিতীয় ওয়েভে সারা দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে বেড এবং অক্সিজেন সংকট দেখা দিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে নান্দেদ সাহেব গুরুদার করোনা রোগীদের জন্য অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করে দিচ্ছে। পাশাপাশি, করোনা রোগীদের বিনামূল্যে ওষুধ এবং খাবারের ব্যবস্থা করছে তাঁরা।