Wednesday, July 24, 2024
কলকাতা

ঘূর্ণিঝড় আঁখির আঘাতে তামিলনাড়ুতে নিহত ১৪

তিরুবনন্তপুরম: ঘূর্ণিঝড় আঁখির আঘাতে তামিলনাড়ুতে ১৪ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গত শনিবার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কেরালা, তামিল নাডুতে প্রথম আঘাত হানে। এরপর ঘূর্ণিঝড়টি দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় দ্বীপপুঞ্জ লাক্ষাদ্বীপে তাণ্ডব চালায়।

ঘূর্ণিঝড় উপদ্রুত এলাকাগুলো থেকে কয়েক হাজার মানুষকে সরিয়ে নেওয়ার পাশাপাশি সাগর থেকে ২২৩ জন জেলেকে উদ্ধার করেছে নাশ্যনাল ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অথরিটি (এডিএমএ), কোস্ট গার্ড ও নৌবাহিনী।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী কে পালানিস্বামীকে ফোন করে সবরকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন।

মুখ্যমন্ত্রীর অফিস এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ের ফলে রাজ্যের ক্ষয়ক্ষতি কতটা হয়েছে জানতে চেয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ৭টি জেলায় ত্রাণকার্য চলছে, তবে সব থেকে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে কন্যাকুমারী ও তিরুনেলভেলি। রাজ্য সরকার জানিয়েছে, ক্ষতি সামলে ওঠার জন্য শিগগিরই কেন্দ্রের কাছ থেকে অর্থসাহায্য চাইবে তারা।

ঝড়ে সমুদ্রে আটকে পড়া ১২টি মাছধরা নৌকায় চড়ে সমুদ্রে পাড়ি দিয়েছিলেন তামিলনাড়ু ও কেরলার বেশ কয়েকজন মৎস্যজীবী। তাঁদের মধ্যে ২১৮ জন বাড়ি ফিরেছেন, ১০২ জন নিখোজ।

আবহাওয়া বিভাগের পরিচালক এস সুদেভান জানিয়েছেন, আগামী ৪৮ ঘন্টায় আঁখি উত্তরদিকে মুম্বাই ও গুজরাটের দিকে এগিয়ে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে; তবে একই সময় ঘূর্ণিঝড়টি শক্তি হারিয়ে দুর্বল হয়ে পড়বে এমন ধারণাও দিয়েছেন তিনি।

এস সুদেভান জানান, “বাতাসের তীব্রতা হ্রাস পেয়ে ঘূর্ণিঝড়টি নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে।”

সাগরে তিন থেকে পাঁচ মিটার উঁচু ঢেউ থাকতে পারে জানিয়ে আগামী কয়েকদিন জেলেদের সাগরে না যেতে সতর্ক করেছেন তিনি।